রক্তের অভাব দূর করতে আসছে কৃত্রিম রক্ত!

চিকিৎসাক্ষেত্রে অন্যতম একটি সমস্যা হলো রক্তের অভাব। বিভিন্ন কারণে রোগীদের রক্তের দরকার হয়, কিন্তু সে পরিমাণে রক্ত সহজে পাওয়া যায় না। অনেক দিন ধরে চিকিৎসাবিজ্ঞানের অন্যতম একটি সমস্যা হয়ে থেকেছে এই রক্তের অভাব। আর গবেষকেরাও অনেকদিন ধরেই খুঁজে চলেছেন বিকল্প রক্ত তৈরির উপায়। অবশেষে ইউনিভার্সিটি অফ ব্রিস্টল এবং NHS ব্লাড অ্যান্ড ট্রান্সপ্লান্টের গবেষকেরা এই সমস্যার সমাধান খুঁজে পেয়েছেন।

রেড ব্লাড সেল প্রচুর পরিমাণে তৈরির উপায় আবিষ্কার করেছেন তারা। কৃত্রিম রক্ত তৈরির প্রযুক্তি ইতোমধ্যেই আছে কিন্তু তা ব্যবহারিক ক্ষেত্রে ব্যবহারের মতো এত বেশী মাত্রায় উৎপাদনের উপায় ছিল না এতদিন। রক্ত তৈরির এসব উপায় তেমন একটা সুবিধার ছিল না। স্টেম সেল নিয়ে এর থেকে রেড ব্লাড সেল তৈরি করা হতো। এভাবে একবারে ৫০ হাজারের মতো সেল তৈরি করা যেত। কিন্তু রক্ত দেওয়ার জন্য ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন এমন সেল দরকার হয়, সেটা তৈরির উপায় ছিল না।

 নতুন এই প্রযুক্তি তৈরির করেছে পৃথিবীর প্রথম এরিথ্রয়েড সেল লাইন, যেগুলো একবারে প্রচুর পরিমাণে রেড ব্লাড সেল তৈরি করতে সক্ষম। গবেষকেরা দাবি করেছেন ইতোমধ্যেই তারা কয়েক লিটার রক্ত তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন। বৃদ্ধির প্রাথমিক পর্যায়ে আটকে ফেলা হয় স্টেম সেল, এর ফলে তারা অমর হয়ে যায় বলা যায়। এই স্যাম্পল থেকে কিছু পরিমাণে নিয়ে রেড ব্লাড সেল তৈরির জন্য ব্যবহার করা হয়।

নেচার কমিউনিকেশনস জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণার একজন লেখক ছিলেন প্রফেসর ডেভ অ্যানস্টি। তিনি বলেন, “অনেটা সময় ধরেই রোগীদেরকে রক্ত দেওয়ার জন্য বিকল্প উপায় হিসেবে কৃত্রিম রক্ত উৎপাদনের চিন্তা করা হচ্ছিল। কৃত্রিম রক্তের প্রথম ব্যবহার হতে পারে দুর্লভ ব্লাড গ্রুপের মানুষদের ক্ষেত্রে।”

তবে যে কোনো নতুন প্রযুক্তির ক্ষেত্রে যা হয়, এক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য। এই প্রযুক্তির পেছনে খরচটা কম হবে না। সাধারণ রক্তের চাইতে এতে খরচ বেশী হবে তা বলাই বাহুল্য। তবে এর পরেও সাধারণ রক্ত দানের প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে, সেই প্রক্রিয়াটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা এখনো দেখা যাচ্ছে না।

আপনাদের মতামত প্রকাশ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *