শ্রীলঙ্কার কাছে ৭৯ রানে হারলো টাইগার বাহিনী

ফাইনাল জিততে না পারার আক্ষেপটা দূর হলো না টাইগারদের। মিরপুরে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কার কাছে ৭৯ রানে হারলো টাইগার বাহিনী। ২২ রানে নেই ৩ উইকেট। দল চরম সংকটে। এমন সময়ে হাল ধরেছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৮তম হাফসেঞ্চুরি তুলে হালটা ধরে ছিলেন শেষপর্যন্ত। কিন্তু হলো না স্বপ্নপূরণ। ৭৬ রান করে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। তাতেই ১৪২ রানে ৯ উইকেট নিয়ে শেষ বাংলাদেশের ইনিংস।

৪০ বলের ধৈর্যশীল ইনিংসে মাত্র ১টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন মুশফিক। করেছেন ২২ রান। কিন্তু দলের বিপদের মুহূর্তে এমন একটি ইনিংস খেললেও দায়িত্ব নিয়ে শেষটা করে যেতে পারলেন না উইকেটরক্ষক এ ব্যাটসম্যান। তৃতীয় উইকেটে মাহমুদউল্লারহ সঙ্গে তার জুটিটি ছিল ৫৮ রানের।

মুশফিক ফেরার পর বেশিদূর এগোতে পারেননি মেহেদী হাসান মিরাজও। ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সুযোগ পেয়ে ১৪ বলে ৫ রান করে ধনঞ্জয়ার ফিরতি ক্যাচ হয়েছেন তিনি। এরপর মোহাম্মদ সাইফউদ্দীন ৮ রান করে রানআউটের কবলে, ৫ রান করে সাজঘরে দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজাও।

চোটের কারণে সাকিব আল হাসান আর ব্যাটিংয়েই নামতে পারেননি। ফাইনালের গুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ে ইনিংসের শুরুতেই আরেক ব্যাটিং ভরসা তামিম ইকবালের উইকেটটিও হারিয়েছে বাংলাদেশ। টাইগার ওপেনার অনেকটা সময় বল খরচ করে সেট হতে চেয়েছেন। কিন্তু শেষপর্যন্ত লোভ সামলাতে পারেননি।

দুষ্মন্ত চামিরার বাউন্সি এক ডেলিভারি পুল করতে গিয়ে বল বাতাসে ভাসিয়ে দিয়েছেন তামিম। ১৮ বলে মাত্র ৩ রান করে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ক্যাচ হয়ে ফিরেছেন তিনি।

এরপর ১০ রান করে রানআউটের ফাঁদে পড়েছেন মোহাম্মদ মিঠুন। বিপদে আরও একবার ব্যর্থ সাব্বির রহমান। দুষ্মন্ত চামিরাকে পুল করতে গিয়ে গুনারত্নের ক্যাচ হয়ে ফিরেছেন তিনি। ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান করেন মাত্র ২ রান।

আপনাদের মতামত প্রকাশ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *