আজকের দিন তারিখ ২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ইং, বৃহস্পতিবার, ১৩ বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৮ শাবান, ১৪৩৯ হিজরী, রাত ২:০৮
সর্বশেষ সংবাদ
আইন-আদালত, জাতীয়, প্রধান সংবাদ বিউটি আক্তার ধর্ষণ ও হত্যাকারী পাঁচদিনের রিমান্ড

বিউটি আক্তার ধর্ষণ ও হত্যাকারী পাঁচদিনের রিমান্ড


পোস্ট করেছেন: ঢাকা টেলিগ্রাফ | প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ১, ২০১৮ , ৬:০০ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আইন-আদালত,জাতীয়,প্রধান সংবাদ


ঢাকা টেলিগ্রাফ: কিশোরী বিউটি আক্তার ধর্ষণ ও হত্যা মামলার প্রধান আসামি বাবুল মিয়ার পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রবিবার বিকালে হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আসমা বেগম এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। বিকেলে তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ ১০দিনের রিমান্ড চাইলে পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন সিনিয়র জুডিশিয়াল। এরআগে আসামি বাবুলকে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব।

এ বিষয়ে দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বিধান ত্রিপুরা জানান, বিউটি হত্যাকাণ্ডের আরও কিছু তথ্য উদঘাটনের জন্য আসামি বাবুলকে শুক্রবার আদালতে নেয়া হয়নি। বাবুল মিয়ার কাছ থেকে প্রাথমিকভাবে যে তথ্য পাওয়া গেছে, তা তদন্তের স্বার্থে এখনি বলা যাচ্ছে না। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টায় বাবুলকে সিলেটের বিয়ানীবাজারে তার ফুফুর বাসা থেকে আটক করা হয়।

গত ২১শে জানুয়ারি শায়েস্তাগঞ্জের ব্রাহ্মণডোরা গ্রামের দিনমজুর সায়েদ আলীর মেয়ে বিউটি আক্তারকে (১৪) বাড়ি থেকে অপহরণ করেন বাবুল মিয়া ও তার সহযোগীরা। এরপর এক মাস তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়। এক মাস নির্যাতনের পর বিউটিকে কৌশলে তার বাড়িতে রেখে পালিয়ে যায় বাবুল। এ ঘটনায় গত ১লা মার্চ বিউটির বাবা সায়েদ আলী বাদী হয়ে বাবুল ও তার মা স্থানীয় ইউপি মেম্বার কলমচানের বিরুদ্ধে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পরে মেয়েকে সায়েদ আলী তার নানার বাড়িতে নিয়ে রাখেন।

এরপর বাবুল ক্ষিপ্ত হয়ে ১৬ই মার্চ বিউটি আক্তারকে উপজেলার গুনিপুর গ্রামের তার নানার বাড়ি থেকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে ফের ধর্ষণের পর হত্যা করে তার মরদেহ হাওরে ফেলে দেয়।

বিউটিকে হত্যা ও ধর্ষণের অভিযোগে ১৭ই মার্চ তার বাবা সায়েদ আলী বাদী হয়ে বাবুল মিয়াসহ দু’জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আপনাদের মতামত প্রকাশ করুন