ফেইসবুকের ৮ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা

৫ কোটি নয় বরং ৮ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের তথ্য গোপনে হাতিয়ে নিয়েছে ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা।

ফেইসবুকের প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা এক বিবৃতিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ওই গ্রাহকদের বেশিরভাগই যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা বলেও জানিয়েছেন তিনি।

অনুমতি ছাড়া গ্রাহকদের তথ্য চুরির ঘটনায় কয়েকদিন আগে ক্ষমা চেয়েছিলো এ সামাজিক মাধ্যম প্রতিষ্ঠানটি। এ কারণে শেয়ার বাজারেও দর পড়ে গিয়েছিলো ফেইসবুকের।

গ্রাহকদের তথ্য বেহাতের কারণে মার্কিন সিনেটে হাউজ অব কমার্স কমিটির সামনে ১১ই এপ্রিল সাক্ষ্য দেবেন কোম্পানিটির সিইও মার্ক জাকারবার্গ। এই ঘোষণা আসার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তথ্য চুরি যাওয়া গ্রাহকের সংখ্যা এক লাফে বেড়ে যাওয়ায় ফেইসবুকের ওপর সমালোচনার চাপ আরো বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

গুগল, ফেসবুক, ইউটিউবও কর দিবে

সামাজিক মাধ্যম গুগল, ফেসবুক ও ভিডিও আদান-প্রদানের ওয়েবসাইট ইউটিউব করের আওয়ায় আসছে। দেশে অনলাইনে এসব মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রচুর অর্থ আয় করা হচ্ছে। কিন্তু সরকার এ থেকে কোনো রাজস্ব পাচ্ছে না। অথচ দেশীয় গণমাধ্যম ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এই অবস্থায় ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলকে করের আওতায় আনার আহ্বান জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে এনবিআর বলছে, আগমী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে এদেরকে করের আওতায় আনা হবে।

বুধবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে সংবাদপত্র শিল্প মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) নেতাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট আলোচনায় এ বিষয়ে কথা হয়। এতে বক্তারা ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলকে করের আওতায় আনার আহ্বান জানান।

সভায় নোয়াবের সভাপতি মতিউর রহমান বলেন, ইউটিউব-ফেসবুকে অবাধ বিজ্ঞাপনের কারণে রাজস্ববঞ্চিত হতে হচ্ছে। ইউরোপসহ উন্নতবিশ্ব এমনকি ভারতেও এদের ওপর কর আরোপ করা হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে এটা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, তারা প্রচুর পরিমাণ অর্থ আয় করে নিয়ে যাচ্ছে। অথচ সরকার কোনো রাজস্ব পাচ্ছে না। এটা অবশ্যই করের আওতায় আনা উচিত।

সংবাদপত্রের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে তিনি বলেন, এ শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে হলে নিউজপ্রিন্ট আমদানিতে শুল্ক-কর প্রত্যাহার, কর্পোরেট কর হার হ্রাস, বিজ্ঞাপনের ওপর অগ্রিম আয়কর ও ভ্যাট প্রত্যাহার করতে হবে।

জবাবে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, আগামী বাজেটে এর প্রতিফলন থাকবে। এদেশে ইউটিউব ও ফেসবুকের প্লানেস হচ্ছিল এত দিন। প্লানেসের দিন শেষ হয়েছে। এখন তাদের করের আওতায় আনা হবে।

৪ কোম্পানিকে লাইসেন্স, ফোরজি সেবা চালু

দেশে ফোরজি নেটওয়ার্ক চালুর লাইসেন্স পেল গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক ও টেলিটক।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) চারটি মোবাইল অপারেটরদের হাতে ফোরজির লাইসেন্স তুলে দেয়। লাইসেন্স পাওয়ার পরপরই দেশের চার অপারেটর ফোরজি নেটওয়ার্ক আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবি এবং টেলিটকের কাছে ফোরজির লাইসেন্স হস্তান্তর করেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আজ বাংলাদেশের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন। ঐতিহাসিক এ অর্থে যে আজ বাংলাদেশ ফোরজির যুগে পা রাখলো। আশা করি, টেলিকম অপারেটররা গ্রাহকদের চাহিদা মেটাবেন।’

তিনি আরও বলেন, টেলিকম অপারেটরদের আরও সেবার মান বাড়াতে হবে। কারণ জনগণ আপনাদের সেবার জন্য পয়সা খরচ করে। শুরুতে গ্রামীণফোন ঢাকার কিছু অংশে ফোরজি চালু করে। অন্যদিকে বাংলালিংক ঢাকাসহ চট্টগ্রাম, খুলনা এবং সিলেটে একযোগে ফোরজি চালু করে।

এছাড়াও রবি ঢাকায় ফোরজি নেটওয়ার্ক চালুর ঘোষণা দিয়েছে। যদিও সরকারি সংস্থা টেলিটক ফোরজির লাইসেন্স পেলেও ফোরজি চালুর ঘোষণা দেয়নি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, ডাক, টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার উপস্থিত ছিলেন।

বিটিআরসি গত সপ্তাহে ঢাকায় নিলামের মাধ্যমে ফোরজি তরঙ্গ বরাদ্দ দেয়। নিলামে অংশ নেয় গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক। গ্রামীণফোন নিলামে ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ৫ মেগাহার্জ তরঙ্গ কেনে। গ্রামীণফোনের এখন তরঙ্গের পরিমাণ ৩৭ মেগাহার্জ। নিলামে বাংলালিংক ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ৫ মেগাহার্জ এবং ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ৫.৬ মেগাহার্জ তরঙ্গ কেনে। অপারেটরটির মোট তরঙ্গের পরিমাণ ৩০.৬।

নিলামে রবি ও টেলিটক অংশ না নিলে তাদের যে টুজি ও থ্রিজি ব্যান্ডে যে তরঙ্গ রয়েছে তা ফোরজি নেটওয়ার্ক বিস্তারে ব্যয় করতে পারবে। কেননা, বিটিআরসি নতুন এক নির্দেশনায় অপারেটরগুলোকে টেক নিউট্রালিটি দিয়েছে। ফলে অপারটরগুলোর অব্যবহৃত বিভিন্ন ব্যান্ডের তরঙ্গ ফোরজিতে ব্যবহারে বাধা নেই।

রবি ও এয়ারটেল একীভূত হওয়ার ফলে তাদের তরঙ্গও একীভূত হয়েছে। রবির এখন মোট তরঙ্গের পরিমাণ ৩৬.৪। টেলিটকের তরঙ্গ আছে ২৫.২ মেগাহার্জ।

ইন্টারনেটের গতি কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিটিআরসি) ইন্টারনেটের গতি কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে  ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবিএ’র সভাপতি আমিনুল হাকিম।

সোমবার সকালে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সকালে বিটিআরসি থেকে মেইলে জানানো হয়েছে ইন্টারনেটের গতি স্বাভাবিক রাখতে। ইন্টারনেট ধীর গতি রাখার যে সিদ্ধান্ত হয়েছিল সেটা প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে ইন্টারনেটের স্বাভাবিক গতি ফিরে এসেছে। ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) থেকে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ সরবরাহ স্বাভাবিক করা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে পরীক্ষা শুরুর দুই ঘণ্টা আগে থেকে মোট আড়াই ঘণ্টা সময় ইন্টারনেটে ধীর গতি রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা পর পর্যন্ত (সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত) ইন্টারনেট ধীর গতিতে চলবে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি থেকে দেশের সব আইআইজিকে (ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে) এই নির্দেশ পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া ধীর গতিতে ইন্টারনেট চালানোর সিদ্ধান্ত পরীক্ষামূলকভাবে বাস্তবায়নে রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ইন্টারনেট সেবার গতি ধীর ছিল। আইএসপি ও মোবাইল অপারেটরগুলোতে ২৫ কেবিপিএস (কিলোবিট পার সেকেন্ড) ব্যান্ডউইথ সরবরাহর কারণে কার্যত বন্ধই ছিল ইন্টারনেট। এসময় কোনও ওয়েবসাইটে ঢোকা যায়নি। কিছু সার্চ দিলেও ওয়েবপেজগুলো কেবল ‘লোডিং’ দেখাচ্ছিল।

স্বল্পমূল্যের উইন্ডোজ ল্যাপটপ বাজারে আনছে মাইক্রোসফট

গুগল ক্রোম ওএস ও ক্রোমবুক কখনোই মূলধারার ল্যাপটপ বাজারে নিজের অবস্থান শক্ত করতে পারেনি। কিন্তু শিক্ষা ক্ষেত্রে স্বল্পমূল্যের নিরাপদ এই ল্যাপটপ দিয়ে নিজেদের অবস্থান পোক্ত করেছে।

হারানো বাজার ফিরে পেতে এবার মাইক্রোসফট তাদের পার্টনারদের মাধ্যমে কিছু স্বল্পমূল্যের উইন্ডোজ ল্যাপটপ বাজারে আনতে যাচ্ছে। মাত্র ১৮৯ ডলার থেকে শুরু হওয়া মূল্যের ল্যাপটপগুলো শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হচ্ছে।পার্টনারদের মধ্যে রয়েছে লেনোভো ও জেপি।

লেনোভোর ১০০ই ল্যাপটপটিতে থাকছে ইন্টেল অ্যাপোলো লেক সিরিজের প্রসেসর, ৩০০ই মডেলটি করা হয়েছে পেন ড্রইং ও ট্যাবলেট হিসেবেও ব্যবহার করার জন্য।জেডির একটি মডেল ট্যাবলেট হিসেবে, অন্যটি বায়োমেট্রিক সিকিউরিটি সমৃদ্ধ। লেনোভো ১০০ই ল্যাপটপটির মূল্য ধরা হয়েছে ১৮৯ ডলার, বাকিগুলো যথাক্রমে ২৭৯, ১৯৯ ও ২৯৯ ডলার।নতুন ল্যাপটপগুলোর মূল্য সরাসরি ক্রোমবুককে লক্ষ্য করে করা হয়েছে। ল্যাপটপের পাশাপাশি মাইক্রোসফট সফটওয়্যারেও নতুনত্ব আনতে যাচ্ছে।

জনপ্রিয় গেইম মাইনক্র্যাফ্টের শিক্ষামূলক সংস্করণে রসায়ন শেখার জন্য মোড যুক্ত করা হবে বিনামূল্যে। ল্যাপটপের পাশাপাশি ভার্চুয়াল রিয়েলিটির দিকেও নজর দিচ্ছে মাইক্রোসফট। উইন্ডোজ মিক্সড রিয়েলিটি হেডসেটের মূল্য হ্রাস, পিয়ারসন, ম্যাকমিলানের মত জনপ্রিয় প্রকাশনীকে ভার্চুয়াল রিয়েলিটির জন্য শিক্ষামূলক কনটেন্ট আনতে উদ্বুদ্ধ করা থেকে শুরু করে বিবিসি ও অ্যানিমেল প্লানেটকে ভার্চুয়াল এক্সপেরিয়েন্স তৈরি করতেও মাইক্রোসফট নিযুক্ত করেছে। গুগল ক্রোমবুকের কাছে হারানো বাজার মাইক্রোসফটের মাধ্যমে ফিরে পায় কিনা সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

মে মাসে ফোরজি সেবা চালু করবে টেলিটক: মোস্তফা জব্বার

আগামী মে মাসে টেলিটক চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) সেবা চালু করবে আশা ব্যক্ত করেছেন, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার  ।

তিনি বুধবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য দিদারুল আলমের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে বলেন, টেলিটক নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ২শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে সব বিভাগীয় শহরে ফোরজি সেবা চালু করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধিতে টেলিটকের নেটওয়ার্ক পরিধি বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইতোমধ্যে দু’টি প্রকল্প চলমান রয়েছে। এ দু’টি প্রকল্প শেষ হলে উপজেলা পর্যায়ে নিরবচ্ছিন্ন তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রিজি) নেটওয়ার্ক কভারেজ দেয়া সম্ভব হবে।

তিনি বলেন, গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে থ্রিজি গ্রাহক সংখ্যা প্রায় ছয় কোটি চার লাখ ১৯ হাজার।

ফোর জি নিলাম স্থগিত করল হাইকোর্ট

ফোরজি মোবাইল ফোন সেবার লাইসেন্স এবং তরঙ্গ নিলামের জন্য আবেদন আহ্বান করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিটিআরসির করা বিজ্ঞপ্তি স্থগিত করেছে হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে, বিজ্ঞপ্তির নোটিশ এবং ২০০৮ সালের নীতিমালা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। আদালতের আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস।

বাংলা লায়নের রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

অপারেটরদের আপত্তির মুখেই ফোর-জি লাইসেন্স আবেদন ও তরঙ্গ নিলামের সময়সূচি ঘোষণা করেছিল বিটিআরসি।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী ড. কামাল হোসেন, তার সঙ্গে ছিলেন রমজান আলী সিকদার। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সমরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস। আদালতে রিট আবেদনটি দায়ের করেছিল বাংলালায়ন কমিউনিকেশন্স লিমিটেড।

আদেশের পর আবেদনকারীর এক আইনজীবী বলেন, সেলুলার মোবাইল ফোন সার্ভিসেস, এটা করে যে নীতিমালা আহ্বান করেছিল, নোটিশ যেটা দেয়া হয়েছিল, ২০০৮ সালের ব্রডব্যান্ড গাইডলাইন্সের সাথে সাংঘর্ষিক। এ কারণে স্থগিতাদেশ দিয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

গত বছরের ৪ ডিসেম্বর বিশেষ কমিশন সভায় দুই গাইডলাইন প্রকাশ ও আবেদন আহ্বানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। ওইদিন বিটিআরসির ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন গ্রহণের পর ২৫ জানুয়ারি যোগ্য আবেদনকারীর তালিকা প্রকাশ করবে বিটিআরসি।

২৯ জানুয়ারি নিলামের আলোচনা, ৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিড আর্নেস্ট মানি প্রদান, ৭ ফেব্রুয়ারি নিলামের চিঠি প্রদান, ১২ ফেব্রুয়ারি মক নিলাম, ১৩ ফেব্রুয়ারি নিলাম এবং ১৪ ফেব্রুয়ারি নিলামে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

গত বছরের ২৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই দুই গাইডলাইনের অনুমোদন দেন। ওই দিন সংবাদ সম্মেলনে তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, মোবাইল ফোন অপারেটরদের আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করে ফোরজি লাইসেন্সিং গাইডলাইন এবং তরঙ্গ নিলাম গাইডলাইন প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিয়েছেন।

থাকছে না ৫৭ ধারা

ঢাকা টেলিগ্রাফ: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের বিতর্কিত ৫৭ ধারা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ ধারার পরিবর্তে ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হয়েছে। আজ বুধবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির এক বৈঠকে এ বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে।

বৈঠক শেষে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আইসিটি অ্যাক্টের ৫৭ ধারা নিয়ে সাংবাদিকসহ অনেকেরই উদ্বেগ রয়েছে। এ ধারাটি এখন আর সেভাবে থাকছে না। এ ধারাটি ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের সঙ্গে সমন্বয় করা হবে। যাতে বাকস্বাধীনতা খর্ব না হয়।’

৫৭ ধারা বাতিলের বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘৫৭ ধারাসহ আইসিটি অ্যাক্টের কয়েকটি ধারা বিলুপ্ত করা হচ্ছে। আজকের বৈঠকে এ বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। আইসিটি অ্যাক্টের ৫৭ ধারা বাতিল হওয়ার পর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মাধ্যমে ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।’

বহুল আলোচিত ৫৭ ধারার অপপ্রয়োগের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের একাধিক সংগঠনসহ বিভিন্ন সংগঠন ও সংস্থার প্রতিবাদের মুখে সরকার এ ধারাটি বিলুপ্ত করার উদ্যোগ নেয়। তবে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের ১৯ ও ২০ ধারার মাধ্যমে ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়।

এরই মধ্যে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের খসড়া মন্ত্রিসভা অনুমোদন করার পর অধিকতর যাচাই বাছাই করার জন্য মন্ত্রিসভা একটি কমিটি গঠন করে দেয়। এ কমিটি আজ সকাল ১০টায় পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দীর্ঘ বৈঠক করে ৫৭ ধারা না রাখার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়।

বৈঠকে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, ডাক, তার ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিবরা অংশ নেন।

সূত্র: এনটিভি অনলাইন।

কৃত্রিম ড্রোনকে হারাল‘মানব পাইলট‘

 ঢাকা টেলিগ্রাফ: নাসার ড্রোন প্রতিযোগিতায় কৃত্রিম প্রযুক্তি নিয়ন্ত্রিত একটি ড্রোনকে হারাল এক মানব পাইলট। তাঁর নাম কেন লু। যদিও নাসা জানায়,  কৃত্রিম প্রযুক্তি নিয়ন্ত্রিত ড্রোনের পারফরম্যান্স  ছিল অনেক বেশি ধারাবাহিক ।নাসার গবেষক রব রিড বলেছেন, ‘আমরা একজন মানুষের বিরুদ্ধে ড্রোনগুলিকে প্রতিযোগিতায় নামিয়েছিলাম।

নাসার জেট প্রপালসন ল্যাবরেটরির গবেষকরা সম্প্রতি ড্রোন রেসিংয়ের উপর জোর দিচ্ছেন। উচ্চ গতির এই প্রতিযোগিতায় সফল হতে গেলে প্রচণ্ড রিফ্লেক্স দরকার। সেখানেই কৃত্রিম ড্রোনকে টেক্কা দিলেন লু। ব্যাটম্যান, জোকার ও নাইটউইং নামে তিনটি ড্রোন তৈরি করেন নাসার গবেষকরা। এই ড্রোনগুলি ঘণ্টায় ১২৯ কিলোমিটার গতিতে উড়তে সক্ষম। কিন্তু সেই গতি নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা করা হয়। ফলে ড্রোনগুলি ঘণ্টায় মাত্র ৪৮ থেকে ৬৪ কিমি গতিতে উড়তে সক্ষম হয়।

লু-র তুলনায় কৃত্রিমভাবে নিয়ন্ত্রিত ড্রোনগুলি অনেক বেশি সতর্ক ছিল। তবে সেগুলি অনেক সহজভাবে উড়েছে। যদিও অনেক উন্নতি দরকার। ’

এই প্রতিযোগিতা সম্পর্কে লু বলেছেন, ‘এটাই আমার উড়ানের কঠিনতম পথ ছিল। পাইলট হিসেবে আমার ভুল হলো, সহজে ক্লান্ত হয়ে যাই। যখনই আমি মানসিকভাবে ক্লান্ত হয়ে পড়ি, তখনই পিছিয়ে পড়ি।

‘এএসওসিআইও-১৭ ডিজিটাল গভর্নমেন্ট এ্যাওয়ার্ড’ গ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা টেলিগ্রাফ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘এএসওসিআইও-২০১৭ ডিজিটাল গভর্নমেন্ট এ্যাওয়ার্ড’ গ্রহণ করেছেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে তাঁর কাছে এ পুরস্কার হস্তান্তর করেন।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়ায় এশিয়ান-ওসেনিয়ান কমপিউটিং ইন্ডাস্ট্রি অর্গানাইজেশন (এএসওসিআইও) কর্তৃক গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর কাছে বহুমাত্রিক ডিজিটাল সেবা পৌঁছে দেয়ার স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ ডাক বিভাগকে এএসওসিআইও-২০১৭ ডিজিটাল গভর্নমেন্ট এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। পুরস্কারটি ‘এএসওসিআইও-এর চেয়ারম্যানের কাছ থেকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম গ্রহণ করেন।

১৯৮৩ সালে এশিয়া ও ওসেনিয়া অঞ্চলের ২৪টি দেশের ন্যাশনাল আইসিটি এসোসিয়েশনস-এর সমন্বয়ে ‘এএসওসিআইও গঠিত হয়। প্রতিষ্ঠানটি প্রতিবছর ৪টি ক্যাটাগরিতে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করে থাকে।

তারানা হালিমের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রী এশিয়া প্যাসিফিক কাউন্সিল ফর ট্রেড ফেসিলেশন এন্ড ইলেকট্রনিক বিজনেস (এএফএসিটি)-এর রৌপ্যপদক এবং দ্য ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি এন্ড সার্ভিসেস এলায়েন্স (ডব্লিউআইটিএসএ) মেরিট এ্যাওয়ার্ডও গ্রহণ করেন।

গত ১২ সেপ্টেম্বর তাইওয়ানে অনুষ্ঠিত ইএশিয়া এ্যাওয়ার্ড প্রতিযোগিতায় এশিয়া প্যাসিফিক কাউন্সিল ফর ট্রেড ফেসিলেশন এন্ড ইলেকট্রনিক বিজনেস (এএফএসিটি) কর্তৃক বাংলাদেশ ডাক বিভাগকে ই-কমার্স সেবা সংশ্লিষ্ট পোস্টাল ক্যাশ কার্ড : ব্যাংকিং ফর আন-ব্যাংকড পিপল-এর জন্য রানার্স-আপ হিসেবে সিলভার এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

প্রতিষ্ঠানটি প্রতিবছর ইনিসিয়েটিভস ফর ব্রিডজিং ডিজিটাল ডিভাইড-এ অসামান্য অবদানের জন্য ইএশিয়া এ্যাওয়ার্ড প্রদান করে আসছে।

একই দিন তাইওয়ানে দ্য ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি এন্ড সার্ভিসেস এলায়েন্স (ডব্লিউআইটিএসএ) কর্তৃক বাংলাদেশ ডাক বিভাগকে ৯৮৮৬টি ডাকঘরের মধ্যে ৮৫০০টি ডাকঘরকে পোস্ট ই-সেন্টারে রূপান্তরের জন্য ডিজিটাল অপর্সুনিটি ক্যাটাগরিতে ডব্লিউআইটিএসএ মেরিট এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

ডব্লিউআইটিএসএ বর্তমান বিশ্বের আইসিটি ইন্ডাস্ট্রিগুলোর একটি নেতৃস্থানীয় সংগঠন। ৮০টি দেশ এর সদস্য। পৃথিবীর মোট আইসিটি মার্কেটের প্রায় ৯০ শতাংশ ওই প্রতিষ্ঠানের সদস্য দেশগুলো প্রতিনিধিত্ব করে। প্রতিষ্ঠানটি প্রতিবছর ৮টি ক্যাটাগরিতে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করে থাকে।